সাবধান!- যে ৫টি বিষয় অনলাইনে কখনও প্রকাশ করবেন না

Tweet

Internetপ্রযুক্তি ডেস্ক:
আপনি হয়তো অনলাইনে সময় কাটাতে ভালোবাসেন। তাই ব্যক্তিগত কোন তথ্য, মন্তব্য, মনোভাব প্রকাশে সমস্যাটা কোথায়? এমন ভাবনা মাথায় আসলেই ঘোর-বিপত্তি শুরু। কারণ, এটা এমন এক চর্চা, যা আপনাকে ভবিষ্যতে ভয়াবহ বিপদে ফেলে দিতে পারে। ইন্টারনেটকে ততোটাই আপন করুন, যতোটা আপনার প্রয়োজনকে মেটানোর পক্ষে যথেষ্ট। আসক্তির পর্যায়েও এটাকে টানবেন না। যে ৫টি বিষয় কোনদিনও অনলাইনে প্রকাশ করতে যাবেন না, এখানে সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা হলো:
অন্তরঙ্গ ছবি বা ভিডিও পোস্টের বিড়ম্বনা: কখনও কখনও মুহূর্তের উত্তেজনার সঙ্গে তাল মেলাতে অনেকেই অন্তরঙ্গ কোন ছবি বা ভিডিও সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটে পোস্ট করে দেন। মনে রাখবেন, শেয়ার করা মাত্রই আপনার অফিসের প্রধান কর্মকর্তা, সহকর্মী, পিতা-মাতা, ভাই-বোন, বন্ধু-বান্ধবরা সেটা দেখতে পাচ্ছেন। সবাই বিষয়টাকে সমানভাবে নেবেন, সেটা ভাবার কোন অবকাশ নেই। তাছাড়া আপনার জীবনেও নানা মোড়ের পরিবর্তনে মানসিকতা পাল্টাতেও হয়তো সময় লাগবে না। সেটাই বহু বছর পর হয়তো আপানার যন্ত্রণার কারণ হবে। কারণ, অনলাইনে একবার কোন কিছু পোস্ট করলে, তা কখনোই সম্পূর্ণ মুছে ফেলা যায় না। তাই সতর্ক থাকাই বুদ্ধিমানের কাজ।
আপনার ফোন নম্বর ও ঠিকানা: অনলাইনে আপনার বাসার ঠিকানা বা কোন ধরনের ফোন নম্বর দেয়ার মতো ভুল করবেন না। আপনার যদি মনে হয়, আপনার ই-বন্ধুকে আপনি চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করতে পারেন, তাও এতোটা সরলতা দেখাবেন না। একইভাবে কোন অনলাইন লটারি ড্র’তেও অংশগ্রহণ করবেন না। মোবাইল বা ক্রেডিট কার্ড নম্বর, ঠিকানা ইত্যাদি দেয়া তো বহু দূরের কথা। ওই লাকি লটারি ড্র’ই আপনার জন্য ভীষণ আনলাকি হয়ে উঠতে পারে।
অশালীন বা কটু মন্তব্য পোস্ট করবেন না: আপনার অফিসের বস, শিক্ষক, কোন আত্মীয় বা কোন বন্ধুর ওপর ক্ষোভ ঝাড়তে গিয়ে গালি দেয়া, অশালীন বা নেতিবাচক মন্তব্য লিখে অনলাইনে তাদের বিরুদ্ধে কোন বার্তা পোস্ট করতে যাবেন না। খড়গটা আপনার ওপরই হয়তো নেমে আসবে। কোন অভিযোগ থাকলে বসের সঙ্গে সরাসরি আলোচনা করুন। নয়তো দেখবেন, কিভাবে যেন আপনার প্রমোশন আটকে গেছে বা হয়তো চাকরিটাই গেছে।
ব্যাংক অ্যাকাউন্টের বিবরণ: নিরাপদ ওয়েবসাইটসমূহের মাধ্যমে আপনার বিল পরিশোধ এক কথা। কিন্তু, আপনি কখনোই আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর বা এটিএম কার্ডের পিনকোড অনলাইনে উল্লেখ করতে যাবেন না। যতো জরুরিই হোক, এমন ঝুঁকি নিলে হয়তো দেখলেন আপনার অ্যাকাউন্টটি গড়ের মাঠে পরিণত হয়েছে। যদি অনলাইনে কেউ আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বা ক্রেডিট কার্ডের নম্বর চায়, তাকে সরাসরি সন্দেহের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে নেয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ।
সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম বিবরণ পোস্ট করা: আপনার তো ব্যক্তিগত জীবন বলে কিছু রয়েছে। সেটা একান্তই আপনার। তাই নিজের সীমারেখা সম্পর্কে সচেতন হোন। কোথায় গিয়ে কমা, দাঁড়ি টানতে হবে সে বোধটা জাগ্রত করুন। অনলাইনে মাঝে-মধ্যে একটু-আধটু মজা বা রসিকতা করা যেতে পারে। কখনও কখনও আপনার খারাপ লাগা বা ভালো লাগার কথা শেয়ার করা যেতে পারে। কিন্তু, আপনি কখন বাজারে, মার্কেটে বা অন্য কোথাও যাচ্ছেন, সেটা জানানোর কোন যৌক্তিকতা কি আদৌ আছে! তাই অনলাইনে কিছু পোস্ট করার আগে এখন থেকে সতর্ক হয়ে যান। না হলে বিড়ম্বনা শুধুই আপনার।

Leave a Reply